নিউজপোল ডেস্ক: দুর্গাপুজো মানেই চমক। কোথাও মণ্ডপে আবার কোথাও দুর্গাপ্রতিমায় অভিনবত্বের ছোঁয়া রাখে বিভিন্ন পুজো কমিটি। যেমন, এবার প্রতিমা তৈরিতে চমক দিয়েছে কলকাতার এক পুজো কমিটি। তাদের দুর্গাপ্রতিমা তৈরি সোনা দিয়ে। মোট ৫০ কেজি সোনা দিয়ে বানানো হয়েছে মা দুর্গার দেহাবয়ব। ২৫০ প্রতিমাশিল্পী তিনমাস ধরে দিন রাত এক করে বানিয়েছেন এই অনিন্দ্যসুন্দর দেবীমূর্তি। অবশ্য মা দুর্গা তৈরিতে সোনার ব্যবহার কলকাতার পুজোয় এই প্রথম নয়। ২০১৭ সালে এক পুজো কমিটি তাদের দুর্গাপ্রতিমার শাড়ি বানিয়েছিল সম্পূর্ণ সোনা দিয়ে। তবে এবার সোনার মূর্তি গড়ার নেপথ্যে রয়েছে প্রতিবাদ।

পুজো কমিটির সদস্য সজল ঘোষ জানিয়েছেন, শুধুমাত্র মায়ের দশ হাত রুপোর তৈরি। এছাড়া বাকি সমস্ত দেহাবয়ব ৫০ কেজি সোনা দিয়ে প্রস্তুত করা হয়েছে। মণ্ডপসজ্জাতেও রয়েছে জাঁকজমকের ব্যবস্থা। মণ্ডপ বানানো হয়েছে মায়াপুরের ইসকন মন্দিরের আদলে। কিন্তু অন্দরসজ্জা করা হয়েছে রাজস্থানের শিশমহলের অনুকরণে, যা বানাতে ব্যবহৃত হয়েছে টন টন কাচ। হঠাৎ সোনা দিয়ে প্রতিমা বানানোর কারণ জিজ্ঞাসা করায় সজলবাবু বললেন, ‘বহুজাতিক সংস্থাগুলি যন্ত্রের মাধ্যমে অলঙ্কার বানাচ্ছে, যার ফলে বাংলার স্বর্ণ-ব্যবসায়ীদের লোকসান হচ্ছে। আমরা দেখাতে চাই মায়ের মূর্তি এবং শাড়ি বানাতে পারে একমাত্র বিশ্বকর্মারা।’ বিশ্বকর্মা বলতে এখানে স্বর্ণ-শিল্পীদের কথা বলেছেন সজলবাবু। পুজো কমিটির আর এক সদস্য একইভাবে বলছেন, ‘দেশ এবং বিশ্বকে আমরা দেখাতে চেয়েছিলাম, সোনার প্রতিমা যন্ত্র গড়তে পারে না, পারে মানুষই।’