কয়লাকাণ্ডে সমান্তরালভাবে তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই ও ইডি। সারা রাজ্য জুড়ে চলছে তল্লাশি। কয়লাকাণ্ডের মূল মাথা অনুপ মাজি ওরফে লালাকে নাগালে না পেলেও তদন্তে নেমে একাধিক নাম হাতে উঠে আসে তদন্তকারীদের। ইতিমধ্যে লালা ঘনিষ্ট রণধীর কে গ্রেফতার করেছে সিআইডি । আজ সকালেই নাম উঠে আসে লালা ঘনিষ্ট সোনু আগারওয়ালের । পাশাপাশি নাম রয়েছে তৃণমূল নেতা বিনয় মিশ্রের । যদিও এই বিনয় এখন পলাতক। তাঁর বিরুদ্ধে ওপেন ওয়ারেন্ট জারি হয়েছে। রেড কর্নার ঘোষণা শুধু সময়ের অপেক্ষা।

 

তবে বিনয়কে নাগালে না পেলেও ইতিমধ্যেই একাধিকবার তাঁর ভাই বিকাশকে জেরা করেছে সিবিআই। তাঁকে জেরার পর পরই তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় নারুলা ও অভিষেকের শ্যালিকা মেনকা গম্ভীরকে নোটিস পাঠানো হয়। এরইমধ্যে গত মাসেই বিনয়ের দিল্লির বাড়িতে হানা দেয় ইডির একটি দল। সিআরপিএফকে সঙ্গে নিয়েই তল্লাশি চালায় তারা। তখনই বোঝা গিয়েছিল, বড়সড় কোনও পদক্ষেপ করতে চলেছে তারা। মঙ্গলবারই গ্রেফতার করা হল বিকাশকে।

 

এর আগে কলকাতায় বেশ কয়েকবার বিকাশকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। তাঁর জবাবে খুব একটা সন্তুষ্ট ছিলেন না তদন্তকারীরা। এরইমধ্যে এ দিন দুপুরে দিল্লিতে এক আত্মীয়র বাড়ি থেকে গ্রেফতার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। ৬ দিনের জন্য বিকাশকে ইডির হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।