1970-80 র দশকে চিঠি এক অন্যতম মাধ্যম ছিল যোগাযোগের।আট থেকে আশি তরুণ থেকে তরুণী প্রত্যেকেই এই চিঠি দেওয়া নেওয়া করতেন নিজের কথা ভাষা বোঝানো এবং অপরের সমস্যা সমাধানের চেষ্টায়।আর চিঠি দেওয়া নেওয়ার জন্য বাড়িতে বাড়িতে লেটার বক্সের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কারণ পত্রবাহকেরা খুঁজে খুঁজে সেই লেটারবক্সে এই চিঠি দিয়ে যেত বছরের পর বছর ধরে।সারা দিনের শেষে সন্ধ্যেবেলায় লেটার বক্স খুলে সেই চিঠি পেয়ে আত্মীয় স্বজন পরিবার বন্ধু-বান্ধব প্রেমিকা এবং স্বামী-স্ত্রীর দূর-দূরান্তের বহু জমানো কথা পড়া যেত এই চিঠির মাধ্যমে।

অনেকেই সারাদিন ধরেই চিঠি লিখত এবং এই চিঠি পৌঁছেত প্রায় কখনো মাসখানেক পর কখনো বছর পর পর।তবে চিঠি লেখার প্রবণতাও প্রচুর মানুষেরই ছিল এবং যা প্রধান মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করা হতো লেটারবক্স।কিন্তু 2000-02 সালের পর থেকে আস্তে আস্তে যোগাযোগের মাধ্যম হয়ে ওঠে মোবাইল ফোন।আর এই মোবাইল ফোনের দৌলতে একে একে ডিজিটাল প্রক্রিয়া চালু হয়ে যায় গোটা দেশ ও বিশ্বজুড়ে।

প্রতিদিন নতুন নতুন ফিচার অ্যাপস এবং ডিজিটাল মাধ্যম গড়ে ওঠায় আস্তে আস্তে অবলুপ্তি ঘটে হাতে লেখা চিঠির।আর তারই সঙ্গে অবলুপ্তি ঘটে লেটার বক্সের।এরপর চালু হয় অ্যান্ড্রয়েড এবং বর্তমানে 4 জির যুগে হোয়াটসঅ্যাপ,ইনস্টাগ্রাম ফেসবুক,ইমেল,টেলিগ্রামের দৌলতে হারিয়েছে সম্পূর্ণভাবে চিঠির প্রয়োজনীয়তা।চিঠি হারানোর প্রধান কারণ এক সময়ে অভাব দুই মানুষের ভাব প্রকাশে না লেখার প্রবণতা আর এভাবেই হারিয়েছে চিঠি সঙ্গে চিঠি ফেলার লেটারবক্স।

কিন্তু যে জঙ্গলমহলে এই চিঠির রমরমা ছিল বর্তমানে সেই জঙ্গলমহলের চিঠির প্রবণতা হারিয়ে ফেলায় বাড়ির সামনে থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে লেটারবক্স।যেখানে সমাজের গণ্যমান্য সম্ভ্রান্ত শিক্ষিত এবং বেশিরভাগ মানুষই ব্যবহার করত এই চিঠির ফেলার লেটারবক্স সেখানে তারা সরিয়ে ফেলে ফেলেছে এই ডিজিটাল যুগে সম্পর্কের জেরে। কিন্তু এখনও অনেকেই সেই চিঠি না এলে লেটারবক্স ঝুলিয়ে রেখেছে নস্টালজিয়ায়।সরিয়ে ফেলতে বহুবার চেষ্টা করলেও বাপ ঠাকুরদার আমলের সেই স্মৃতি তারা সরাতে চান নি।

ফলে জঙ্গলমহল মেদিনীপুরের শহরের আনাচে-কানাচে অলিগলিতে খুব সংক্ষিপ্ত হলেও কয়েকটি লেটারবক্স এখনও ঝুলছে পুরানো স্মৃতি কে বহন করে।হয়তো আর চিঠি আসবে না কোনোদিন, হয়তো বা মনের ভাব উজাড় করে প্রকাশ করে দেবে না কেউই,হয়তো বা আর পিয়ন ওই লেটার বক্সে চিঠি গলিয়ে দিয়ে যাবে না কাজের তাগিদে তবে এখনো লেটারবক্স রয়েছে গেছে আদি অনন্তকাল ধরে। সেইসব লেটারবক্স রাখা নিয়েও জানিয়েছেন শহরের মানুষ তার পুরনো স্মৃতি কথা।

আরও পড়ুন : India Post GDS Recruitment : ইন্ডিয়া পোস্টের তরফ থেকে করা হচ্ছে প্রায় 40 হাজার পদে নিয়োগ