নিউজপোল ডেস্কঃ নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মজয়ন্তী উদযাপন নিয়ে একটি বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। কারণ, নেতাজির ছবি নিয়ে। যার সামনে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে স্যালুট জানাতে দেখা গিয়েছে। তা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই একাংশ প্রশ্ন তুলেছেন। জল্পনা যেন তুঙ্গে উঠেছে। তাঁদের দাবি, ছবিতে যাকে দেখা যাচ্ছে তিনি আদৌ নেতাজি নয়। বরং তাঁর বায়োপিকে অভিনয় করা অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। যদিও সেই দাবি খারিজ করে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে।

কেন্দ্রীয় সরকার এদিন সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মজয়ন্তীকে ধুমধাম করে ‘পরাক্রম দিবস’ হিসেবে উদযাপন করেছে। কিন্তু জন্মদিনে রাষ্ট্রপতির শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণের ছবি গুমনামির প্রসেনজিৎ বলে নেটিজেনরা দাবি করতে শুরু করেন। শেষে পরিস্থিতি সামাল দিতে মাঠে নামতে হয় বিজেপিকে।

এপ্রসঙ্গে বিজেপি দাবি করছেন, ছবিতে রাষ্ট্রপতি শ্রদ্ধা অর্পণ  করেছেন, তা আসলে নেতাজিরই ছবি। পদ্মশ্রী প্রাপক শিল্পী পরেশ মাইতি এই ছবি নেতাজির পরিবারকে উপহার-স্বরূপ প্রদান করেছিলেন। সেই সূত্রের স্পষ্ট দাবি, ‘এই ছবির সঙ্গে প্রসেনজিতের বিন্দুমাত্র সাদৃশ্য নেই। অযথাই বিতর্ক করা হচ্ছে।’ এই যুক্তিকে সমর্থন করেছেন বিজেপি নেতা তথা নেতাজীর প্রপৌত্র চন্দ্র কুমার বসুও। এই নিয়ে একটি টুইটও করেছেন তিনি। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ শোরগোলের সৃষ্টি হয়েছে। 

যদিও তৃণমূলের সাংসদ মহুয়া মৈত্রও এই বিতর্কমূলক একটি টুইট করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এপ্রসঙ্গে তিনি দাবি করেছেন, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ প্রসেনজিতের ছবিতে শ্রদ্ধা অর্পণ করেছেন। যদিও পরবর্তী সময়ে টুইটটি মুছে দেন কৃষ্ণনগরের সাংসদ মহুয়া মৈত্র।