নিউজপোল ডেস্কঃ বিশ্বভারতী শতবর্ষ উদযাপনে মাথাচাড়া দিয়েছে ‘আমন্ত্রণ বিতর্ক’। অনুষ্ঠানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণই জানানো হয়নি, বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে এমনই অভিযোগ তুললেন তৃণমূল নেতা এবং রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

তবে ইতিমধ্যেই বিশ্বভারতীর প্যাডে লেখা ৪ ডিসেম্বরের একটি চিঠি প্রকাশ্যে এসেছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে লেখা এই চিঠি নিয়ে বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে ব্রাত্যকে প্রশ্ন করা হলে তিনি পালটা প্রশ্ন করেন, ‘‘সেই চিঠির কি কোনও প্রাপ্তি স্বীকার করা হয়েছিল? ওই চিঠির প্রাপ্তি স্বীকারের কোনও নথি আছে কি? উপাচার্য নিজেই সই করে নিজের কাছে ওই চিঠি রেখে দিয়েছিলেন নাকি ?’’ তবে অনুষ্ঠানের আগের রাতে মুখ্যমন্ত্রীকে আলাদা করে অনুষ্ঠানের কথা জানানো হয়েছিল বলে দাবি করা হলে। তার উত্তরে ব্রাত্য বলেন, ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোর এটা কোনও নিয়ম? এ ভাবে কাউকে আমন্ত্রণ জানানো হয়? আসলে এইভাবে মুখ্যমন্ত্রীকে অপমান করা যায় না।’‌
তবে বিশ্বভারতীর অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে না হয়নি, তা নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুরু হয় তর্ক বিতর্ক।

এদিকে,বৃহস্পতিবার বিশ্বভারতীর শতবর্ষ অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় ও কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল। তবে এদিন ‘‌প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য আমায় বিস্মিত করেছে’ বলেও কটাক্ষ করেন ব্রাত্য বসু।