নিজস্ব সংবাদদাতা: নাম বদলাচ্ছে না। মানিকতলা মোড় বনাম কাশীপ্রসাদ জয়সওয়াল দ্বৈরথে আপাতত জয় বাংলাপক্ষেরই। কয়েকদিন আগেই কলকাতার অন্যতম ব্যস্ত এলাকা মানিকতলার নাম পাল্টে কাশীপ্রসাদ চক করে দেওয়ার দাবি তুলে পোস্টার পড়েছিল মানিকতলাতেই। এবার ঢেকে দেওয়া হল সেই পোস্টারগুলি।

 

মানিক পীরের নাম থেকেই মানিকতলার নামকরণ। তিনি হিন্দু–মুসলিম সম্প্রীতির অন্যতম প্রতীক। সেই এলাকার নাম বদলের দাবি ওঠামাত্র প্রতিবাদে নেমেছিল বাংলাপক্ষ। সংগঠনের তরফে কৌশিক মাইতি বলেন, ‘বাঙালির এই প্রতিরোধে আমরা আনন্দিত। ‌বাংলায় কোনও রাস্তার মোড়ের নাম চক হতে দেওয়া হবে না। বহিরাগত শক্তি জোর করে বাংলার শিল্পসংস্কৃতি জমি সব ধ্বংস করতে চায়। সেটা আর হতে দেওয়া যাবে না।’‌ তিনি আরও বলেন, ‘‌বাংলার সংস্কৃতি নিয়ে বাঙালিদের অপমান করা, অনুপ্রবেশকারী বলে অসম্মান করা, বাঙালি নারীদের নোংরা দৃষ্টিতে দেখা— এসব অনেকদিন ধরেই চলছে। একটা সময় পর্যন্ত বাঙালি কোনও প্রতিবাদ করেনি। কিন্তু এখন তারা জেগে গেছে। আর এসব সহ্য করা হবে না। পুলিশ যদি ব্যবস্থা না নেয়, বাঙালিই ব্যবস্থা নেই।’‌

কাশীপ্রসাদ জয়সওয়াল ছিলেন একজন বিশিষ্ট আইনজীবী এবং জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের অন্যতম পরিচিত মুখ। প্রখ্যাত এই আইনজীবীর জন্ম মির্জাপুরে। ‘‌হিন্দু পলিটি’‌ এবং ‘‌হিস্ট্রি অফ ইন্ডিয়া’‌–র মতো বইয়ের রচয়িতা তিনি। কেন তাঁর নামে রাস্তার বদল চাইছে না বাংলাপক্ষ?‌ কৌশিকের জবাব, ‘‌কেউ কারও নামে রাস্তার নাম রাখার দাবি করতেই পারেন। তবে দেখতে হবে এই বাংলার মানুষের জন্য তাঁর কি অবদান রয়েছে। কাশীপ্রসাদের নামে যদি রাস্তার নাম রাখতে হয়, তাহলে সেটা পাটনা কিংবা বেনারসে রাখুক। বাংলায় নয়।’‌