নিউজপোল ডেস্কঃ বাংলা বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল-বিজেপি দ্বন্দ্ব ক্রমশ চরমে উঠেছে। মাঝে মাঝেই সংঘর্ষে লিপ্ত হচ্ছে দুই দলের নেতাকর্মীরা। তাদের দ্বন্দ্ব নিয়ে সরগরম হয়ে আছে গোটা বঙ্গ রাজনীতি। তারমধ্যে গতকাল অর্থাৎ সোমবার চারু মার্কেটে থানার সামনে বিজেপির মিছিলের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। সেই জন্য আজ রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্যপালের দ্বারস্থ হলেন গেরুয়া শিবির। রাজ্যপালের সাথে সাক্ষাৎ করে বাংলা রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার অনুরোধ জানালেন বিজেপি সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়। এমনকি তিনি আগামীকাল নির্বাচন কমিশনে যাবেন বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

আসলে ঘটনাটা গতকালের। গতকাল অর্থাৎ সোমবার বিকেলে টালিগঞ্জ ট্রাম ডিপো থেকে বিজেপির রোড শো শুরু হয়। সেই রোড শোতে একটি বিশাল লরি ট্যাবলোতে ছিলেন দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারী, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী ও অন্যান্যরা। তাদের মিছিল চলাকালীন চারু মার্কেটে থানার সামনে পৌঁছালে পাশের এক গলি থেকে জমায়েত করে বিজেপি বিরোধী স্লোগান শুরু হয়। গেরুয়া শিবিরের দাবি তাদের হাতে তৃণমূলের পতাকা ছিল। তারপর দুই দল সংঘর্ষে লিপ্ত হয় এবং মোটরবাইকে ভাঙচুর চলে। এছাড়াও ইটবৃষ্টি হয় বলে জানা যায়। সেই প্রতিবাদে আজ রাজভবনে রাজ্যপালের সাথে সাক্ষাৎ করতে যান মুকুল রায়।

আজ রাজভবনে গিয়ে মুকুল রায়ের সাথে দীর্ঘক্ষন বৈঠক করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। তাদের মধ্যে রাজ্যের অরাজকতা ও অকেজো প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিয়ে বিস্তর আলোচনা হয়। মুকুল রায় রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে কটাক্ষ করে বলেছেন, “রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে। বিজেপি নেতা কর্মীদের ওপর হামলা চলছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব রাজ্যে ৩৫৬ ধারা জারি করা উচিত। আর তাছাড়া কোনো উপায় নেই।”