নিউজপোল ডেস্কঃ আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠল পশ্চিম বন্দর থানা এলাকায়। এবার বধূ খুনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকা উত্তপ্ত।  মৃতার বাপের বাড়ির অভিযোগ, স্বামীই খুন করেছে তাঁদের মেয়েকে। আর সেই জন্যই পলাতক অভিযুক্ত। মৃতার বাপের বাড়ির অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই নাসিমার ওপর অত্যাচার করত স্বামী। নিত্য মারধর করত। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার তরুণীর মৃত্যুর খবর পায় পরিবার। ঘর থেকে উদ্ধার হয় দেহ। শরীরে মেলে আঘাতের চিহ্ন। খবর পেয়ে দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পশ্চিম বন্দর থানার পুলিশ। অভিযোগ, মারধরের পর শ্বাসরোধ করে বধূকে খুন করেছে তাঁর স্বামী। ঘটনার পর থেকেই বেপাত্তা অভিযুক্ত। তার কঠোরতম শাস্তির দাবি জানিয়েছেন মৃতার বাপের বাড়ির সদস্য ও প্রতিবেশীরা। 

Fact Check: Can Dead Bodies Of COVID-19 Patients Transmit Novel Coronavirus?

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে। কী কারণে দম্পতির মধ্যে অশান্তি চলছিল। কেন স্ত্রীকে মারধর করত অভিযুক্ত, ঘটনার দিন ঠিক কী হয়েছিল, একাধিক প্রশ্নের উত্তরের সন্ধানে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পুলিশ ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে।