অত্যন্ত মর্মান্তিক ঘটনা ঘটল নাগাল্যান্ডে (Nagaland Killing)। জঙ্গি ভেবে সাধারণ নাগরিকদেরকেই গুলি করার অভিযোগ উঠল নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে। আর এই ঘটনার পর থেকেই উত্তপ্ত উত্তর-পূর্বের রাজ্য নাগাল্যান্ড (Nagaland Killing)। স্থানীয় সূত্রে দাবি, নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ইতিমধ্যেই ৬ জন সাধারণ নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। আহতও হয়েছেন ২ জন। পাল্টা এক জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে বলেও খবর। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন অনেকে। ঘটনার পরপর ট্যুইট করে দুঃখপ্রকাশ করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

 

জানা গিয়েছে, রবিবার ভোরে মায়ানমার সীমান্তের কাছে নাগাল্যান্ডের (Nagaland Killing) মন জেলার ওটিংয়ে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে। এলাকাবাসী জানিয়েছেন, জঙ্গি ভেবে সাধারণ শ্রমিকদের উপর গুলি চালানো হয়েছে।

 

এই ঘটনার পরপরই ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে এলাকায়। যদিও নিরাপত্তা বাহিনীর উপরে পালটা হামলা চালানোরও অভিযোগ উঠেছে। নিরাপত্তা বাহিনীর দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

 

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ট্য়ুইট করে লিখেছেন, ”অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনাটি ঘটেছে নাগাল্যান্ডের (Nagaland Killing) ওটিংয়ে। যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন, তাঁদের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা জানাচ্ছি।

 

একটি উচ্চ পর্যায়ের স্পেশ্যাল তদন্তকারী দল রাজ্য সরকার গঠন করেছেন। এই ঘটনার তদন্ত করে প্রাণ হারানো মানুষদের পরিবারকে সুবিচার দেওয়া হবে।”

 

নাগাল্যান্ডের (Nagaland Killing) সাধারণ মানুষকে শান্ত থাকার আবেদন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী নেইপিউ ফিও। টুইট করে তিনি লিখেছেন, ”দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা ঘটেছে ওটিং-য়ে। সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

 

সকল মৃতদের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা জানাচ্ছি। আহতদের দ্রুত আরোগ্যের কামনা করছি। উচ্চ পর্যায়ের অফিসার ও আধিকারিকদের নিয়ে গঠিত SIT এই ঘটনার তদন্ত করবে।”