নিউজপোল ডেস্ক: ভারতীয় টাকায় নেতাজির ছবি থাকবে নাকি গান্ধীজির, এই নিয়ে জল্পনার শেষ নেই। সুভাষচন্দ্র বোসের পরিবার থেকেও আবেদন জানানো হয়েছে বহুবার। কাজ হয়নি। নেতাজি নিজে কিন্তু সেই কাজটা বহু বছর আগেই করে গেছিলেন। নেতাজির ছবি দেওয়া ১ লাখের সেই নোট প্রকাশ্যে এসেছিল তাঁর ১১৩তম জন্মদিনে।
আজাদ হিন্দ ফৌজের এক সদস্য, প্রাগিলাল দুবে ১৯৫৮ সালে মারা যান। তাঁর মৃত্যুর প্রায় দুই দশক পরে ১৯৮০ সাল নাগাদ তাঁর নাতি রামকিশোর দুবে দাদুর বইয়ে খুঁজে পান নোটটি। প্রাগিলাল দুবের রামায়ণ বইয়ের পৃষ্ঠার ভাঁজে রাখা ছিল সেই নোট। সেখানে স্পষ্ট দেখা যায় নেতাজি সুভাষচন্দ্রের ছবি। নোটটির উপরের দিকে রয়েছে আজাদ হিন্দ ফৌজের একাধিক পতাকার ছবি। ঠিক তারই নীচে গাঢ় করে লেখা ‘ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিপেন্ডেন্স’। তার ঠিক নীচে লেখা ‘জয় হিন্দ’। নোটটির বাঁদিকে রয়েছে নেতাজির ছবি এবং ডান দিকে ‘স্বতন্ত্র ভারত’।
১৯৪৩ সালে আজাদ হিন্দ ফৌজ প্রতিষ্ঠা করেন নেতাজি। ১৯৪৪ সালের এপ্রিলে তাঁরই নেতৃত্বে রেঙ্গুনে নিজস্ব একটি ব্যাঙ্ক গড়ে তুলেছিল ফৌজ। নাম ছিল আজাদ হিন্দ ব্যাঙ্ক। দেশবাসীরও সম্মতি ছিল। ১০ টাকা থেকে শুরু করে এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত নোট চালু হয়েছিল। ওই এক লাখ টাকার নোটেই সুভাষচন্দ্রের ছবি ছাপানো ছিল। ভারতীয় নোটে নেতাজির ছবি ছাপানো নিয়ে যাঁরা সওয়াল করে চলেছেন, তাঁদের কাছে তথা দেশবাসীর কাছে এটা কিছুটা হলেও সান্ত্বনা।