নিউজপোল ডেস্কঃ ২৩ জানুয়ারি অর্থাৎ নেতাজির জন্মদিন ‘পরাক্রম দিবস’ হিসেবে পালনের ঘোষণা কেন্দ্রীয় সরকারের। মঙ্গলবার এই সিদ্ধান্তের কথা জানায় কেন্দ্রের সংস্কৃতি মন্ত্রক।

এদিন কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকের তরফে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানানো হয়েছে যে, স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে নেতাজির অবদানের কথা স্মরণ করে তাঁর জন্মদিনকে ‘পরাক্রম দিবস’ হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকার।নেতাজি জন্মজয়ন্তীকে যদি ‘দেশপ্রেম দিবস’ ঘোষণা করা হত, তাহলে আরও যুক্তিযুক্ত হত। তবে, আমরা এই ঘোষণায় খুশি, ২৩ জানুয়ারিকে ‘পরাক্রম দিবস’ হিসেবে কেন্দ্রের ঘোষণা প্রসঙ্গে বললেন নেতাজির প্রপৌত্র তথা BJP নেতা চন্দ্র বসু। তবে এই ঘোষণার পরই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বিরোধীরা। দেশপ্রেম দিবস ঘোষণা করার দাবি জানিয়েছে রাজ্যের শাসক দল থেকে ফরওয়ার্ড ব্লক।

আগামী ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কলকাতা আসছেন। ইতিমধ্যেই ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল ও জাতীয় গ্রন্থাগারে তাঁর অনুষ্ঠানসূচি চূড়ান্ত হয়েছে। দুটি অনুষ্ঠানেই তিনি নেতাজিকে শ্রদ্ধা জানাবেন। সূত্রের খবর প্রধানমন্ত্রী জন্য এখনও পর্যন্ত ওই সময় কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচি চূড়ান্ত করা হয়নি। তবে তিনি দলীয় নেতা কর্মীদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন। অন্যদিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ২৩ জানুয়ারি বেশ কয়েকটি কর্মসূচি গ্রহণ করছেন।

তবে সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবিও তুলেছিলেন যে, নেতাজির জন্মদিনকে জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে ঘোষণা করা হোক। যদিও এই দাবিতে শিলমোহর দেয়নি কেন্দ্র।