বুধবার দুপুর থেকেই আবহাওয়ার উন্নতি হচ্ছিল উত্তরবঙ্গে (North Bengal Weather)।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে অন্য মেজাজ পাহাড়ে। দুর্যোগের মেঘ সরে দেখা মিলল ঝলমলে কাঞ্চনজঙ্ঘার।

তুষারাবৃত এই শৃঙ্গকে নিজের মহিমায় দেখেই হাসি ফুটেছে পাহাড়ে।পাহাড়ের কিছু কিছু জায়গায় ধস রয়েছে। প্রচুর রাস্তা এখনও বন্ধ।

অনেক রাস্তা ধীরে ধীরে খুলে দেওয়াও হচ্ছে। স্বাভাবিক হচ্ছে যান চলাচলও।

বুধবার দুপুরের পর থেকে পাহাড়ের মূল সড়কগুলো যান চলাচলের যোগ্য করে খুলে দেওয়া হয়েছে। এনজেপি থেকে দার্জিলিং যাওয়া যাচ্ছে।

সিকিম এবং কালিম্পং যাওয়ার মূল সড়ক, অর্থাত্‍ ১০ নম্বর জাতীয় সড়কে এখনও ধস রয়েছে।

ফলে গোরুবাথান, লাভা দিয়ে কালিম্পং এবং সিকিমগামী গাড়িগুলোকে ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

বৃষ্টি আর না হওয়ায় সমতলের নদীগুলোতে জলস্তর ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে। সব মিলিয়ে মানুষ এখন স্বস্তিতে।

তবে গত কয়েকদিনের রেকর্ড বর্ষণ প্রচুর রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ভেঙে গিয়েছে বেশ কিছু বাড়ি।

তবে আপাতত আকাশ পরিষ্কার হয়ে যাওয়ায় উত্তরবঙ্গবাসী। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে সোমবার এবং মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গ (North Bengal Weather) এবং সিকিমে খুব হালকা বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে।