গত নভেম্বরেই অগণিত ভক্তকে কাঁদিয়ে তিনি পৃথিবী ছেড়ে চলে গিয়েছেন। দিয়েগো মারাদোনার মৃত্যুর দু’মাস পরে তাঁর জন্যে হার্লে-ডেভিডসনের বিশেষভাবে তৈরি মোটরবাইক সামনে এল। বিখ্যাত এই কোম্পানির তৈরি দু’চাকার যান দেখেই গোটা বিশ্বের চক্ষু চড়কগাছ।

ফ্যাট বব মডেলের এই বাইকটি গোটা বিশ্বেই তুমুল জনপ্রিয়। ভারতে, বিশেষত বলিউড তারকাদের অনেককেই এই বাইকে চড়তে দেখা গিয়েছে। সেই বাইকটিকেই একই ধাঁচ রেখে নতুন করে তৈরি করা হয়েছিল শুধু মারাদোনার জন্য।

মারাদোনা নিজে অবশ্য এটি কেনার বরাত দেননি। এর পিছনে রয়েছেন বেলারুসের ফুটবল ক্লাব ডায়নামো ব্রেস্টের মালিক আলেকজান্ডার জাইটসেভ। ২০১৯-এ মারাদোনাকে ক্লাবের সাম্মানিক প্রেসিডেন্টের পদ দেওয়া হয়। তার কিছুদিন পরেই মারাদোনার হাঁটুতে অস্ত্রোপচার হয়েছিল। তখনই জাইটসেভ উপহার হিসেবে তাঁকে একটি বিশেষ ভাবে নির্মিত মোটরবাইক দিতে চেয়েছিলেন। তারপরেই এটি বানানো হয়।

বাইকের উপরের অংশ আর্জেন্টিনার পতাকা দিয়ে মুড়ে দেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে লেখা, ‘ইয়ো সয় এল দিয়েগো’। বাংলায় যার অর্থ, ‘আমিই দিয়েগো’। সামনের চাকাটি তৈরি করা হয়েছে সোনালি রংয়ের একটি ফুটবলের আদলে। বুঝে নিতে অসুবিধা হয় না যে এটি কার জন্যে তৈরি। হেডলাইটের সামনে মারাদোনার জার্সি নম্বর ১০ লেখা।

শুধু তাই নয়, মারাদোনার বাইক-প্রেম নিয়ে একটি তথ্যচিত্রও তৈরি করেছেন আলেকজান্ডার কোমিশারচুক। করোনা অতিমারির আগে সেটি বেশ কিছু চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানোও হয়েছে।

মারাদোনার মৃত্যুর পরে এই বাইকটির ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, এটিকে নিলাম করা হবে।