নিউজপোল ওয়েবডেস্ক:‌ দেরি করার মতো সময় হাতে নেই। গোটা বিশ্বের বায়ুদূষণ চরমতম উদ্বেগজনক অবস্থায় পৌঁছেছে। সচেতন হতে হবে এখনই। সতর্ক করছে ব্রিটিশ হার্ট ফাউন্ডেশনের (বিএইচএফ)। এই সংগঠনের এক প্রতিবেদনে দেখা গিয়েছে যে, পরের দশকে বায়ু দূষণের কারণে স্ট্রোক এবং হার্ট অ্যাটাকের মতো ঘটনা অনেক বেশি করে ঘটবে। এর ফলে মৃত্যু হতে পারে ১ লক্ষ ৬০ হাজার মানুষের।

দ্য গার্ডিয়ান-এর একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফাউন্ডেশন যে পরিসংখ্যানগুলি দিয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে, বর্তমানে প্রতি বছর আনুমানিক ১১ হাজার জন মারা যান বায়ুদূষণের কারণে। তবে জনসংখ্যা ও বয়সের নিরিখে এই সমস্যা আরও বাড়বে। তবে ভারতে বায়ুদূষণের ফলে স্বাস্থ্যের ঝুঁকি আরও মারাত্মক। চলতি শীতে ধোঁয়াশার ঘন স্তর রাজধানী দিল্লিতে ছড়িয়ে পড়ে। ফলে অনেকেরই শ্বাসকষ্টের ব্যাপক সমস্যা দেখা দেয়। এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) অনুযায়ী এই দূষণ বিপদসীমার পেরিয়ে গিয়েছিল।
গত নভেম্বর এবং ডিসেম্বর মাসে বিশেষত দিল্লিতে বায়ুর গুণগতমানের হ্রাস পায়। রাজধানীর কিছু অংশে এটি ‘৯৯৯’ চিহ্নকে লঙ্ঘন করেছে। ‘
ভারতে বিজ্ঞানীরা এবং চিকিৎসকরা সতর্ক করেছেন এই বাতাসের গুণগতমানের এতটাই খারাপ যে এটি দিনে ৪৪টি সিগারেট ধূমপানের সমতুল্য। এটি প্রত্যেককে গুরুতর স্বাস্থ্য সমস্যার মুখোমুখি ফেলছে। প্রসঙ্গত, আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও দীপাবলিতে বাজি ফাটানো বন্ধ হচ্ছে না। শুধু দেশের রাজধানী বা কলকাতা নয়। সারা দেশেই এই অবমাননার প্রবণতা রয়েছে।