নিউজপোল ডেস্ক: প্রতিদিনের জীবনে প্রয়োজন স্মার্টফোন। কিন্তু কাছের মানুষদের দূরে সরিয়ে দিচ্ছে স্মার্টফোন। নিজেদের কাছ থেকেও অনেকটা দূরে চলে যাচ্ছে মানুষ। এমনকী বাবা-মায়েদের অতিরিক্ত স্মার্টফোন ব্যবহার তাঁদের শিশুদের অনেক দূরে সরিয়ে দিচ্ছে। দিনকয়েক আগে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, বাবা মায়েদের অতিরিক্ত স্মার্টফোন ব্যবহারের ফলে কী মারাত্মক ফল হচ্ছে।
একটি চীনা সংস্থা এই গবেষণা শুরু করে। শিয়াচুং শিয়ে এবং জুলান শিয়ে এই গবেষণায় তুলে ধরেছেন, যেসব বাবা মা স্মার্টফোন ব্যবহার করতে গিয়ে তাঁদের সন্তানদের অবহেলা করছেন, সেই সন্তানরা মানসিক অবসাদের শিকার হয়।
এই সমীক্ষায় ১০ থেকে ১৮ বছর বয়সী প্রায় ৫৩০ জন সন্তানের ওপরে সমীক্ষা চালানো হয়, যাদের বাবা মায়েরা ফোনের প্রতি আসক্ত।
কীভাবে বুঝবেন আপনি ফোনের প্রতি আসক্ত কি না? আপনি কীভবে ফোনটা ধরেছেন তার ওপর নির্ভর করে। যদি মুখের সরাসরি ফোনের স্ক্রিন থাকে বা কোনও মেসেজ বা নোটিফিকেশনের জন্য অপেক্ষা করেন তাহলে অবশ্যই আপনি আসক্ত।
স্মার্টফোনের ব্যবহার সম্পর্কিত পড়ুয়াদের দু’‌টি প্রশ্ন করা হয়েছিল। যার উত্তর দিতে হবে ১ থেকে ৫ মধ্যে নম্বর দিয়ে। কোনও পড়ুয়া ১ দেয়নি। বরং ৫ দিয়েছে সকলেই।
একেবারে ছোটোদের জিজ্ঞেস করা হয়েছিল খাওয়ার সময় তাদের মা বাবা ফোন ব্যবহার করেন কি না?‌ দ্বিতীয় প্রশ্নের মধ্যে ছিল, পড়ুয়াদের মানসিক স্বাস্থ্য এবং মানসিক অবসাদ পরীক্ষা করার বিষয়টি। প্রায় ২০টি প্রশ্নের মধ্যে মাত্র ১ নম্বর দেওয়ার সংখ্যাই বেশি। বেশিরভাগ সন্তানরাই ৪ নাম্বার দিয়েছে।
গোটা বিষয়টি পর্যালোচনা করে গবেষকরা এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন যে, বেশিরভাগ বাবা মা তাঁদের সন্তানের সঙ্গে থাকাকালীন ফোন ব্যবহার করেন। যার ফলে সন্তানরা মনে করে তারা গুরুত্বহীন। বাবা মায়েরা ভালবাসা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তারা। এই পরিস্থিতিতে গবেষকরা সংশ্লিষ্ট বাবা মায়েদের পরামর্শ দিচ্ছেন খাওয়া বা সন্তানের সঙ্গে সময় কাটাতে গিয়ে স্মার্টফোন দূরে রাখুন।