মঙ্গলবারের দিনভর ব্যাপক বৃষ্টির পর বুধবারে টর্নেডাের (tornedo) সাক্ষী থাকল পশ্চিম মেদিনীপুরের (Paschim Medinipur) কেশিয়াড়ির কলাবনী ।

Paschin Medinipur : tornedo in Medinipur
টর্নেডোর ছবি

তথ্যসূত্রের খবর ,স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে , হঠাৎ করেই কেশিয়াড়ির বরাড় গ্রামে হঠাৎ প্রচণ্ড ঝড় শুরু হয় ।

কিছুক্ষণের মধ্যে সেই ঝড় টর্নেডাের (tornedo) চেহারা নেয়

এমনিতেই  গভীর নিম্নচাপের জেরে সারা রাজ্য জুড়ে টানা বৃষ্টি চলছে ।

তারই মধ্যে টর্নেডাের দাপট শুরু হওয়ায় রীতিমত বিদ্ধস্ত রাজ্যবাসী । প্রকৃতি যেন পরীক্ষা নিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে ।

যদিও এই ঝড়ের ফলে সেইরকমের কোনও কোনও বড় ঘটনা ঘটেনি ।

আর কী কী ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে , তা এখনও জানা যায়নি ।

তবে এলাকার উপর দিয়ে টর্নেডাে গিয়েছে , সেখানে কিছু ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে ।

টর্নেডাের খবর পেয়ে সেখানে হাজির হয় ব্লক প্রশাসনের আধিকারিকরা । পরিস্থিতি খতিয়ে দেখছেন তারা ।

এইদিকে পশ্চিমবঙ্গ গতকাল থেকেই ব্যাপক বৃষ্টি হচ্ছে গােটা দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে ।

আবহাওয়া দফতরের তরফে, বুধবারও পশ্চিম মেদিনীপুর (Paschim Medinipur) ও ঝাড়গ্রাম জেলার বেশ কিছু এলাকায় ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে ।

আবহাওয়ায় দফতর সূত্রের খবর ,০৭-২০ সেমি বৃষ্টিপাত হতে পারে ।

এই দু’জেলায় কমলা সতর্কতা জারি করা হয়েছে ইতিমধ্যেই।

নালার মুখে জঞ্জাল , জল নামতে বিলম্ব।

অন্যদিকে , গতকাল থেকে টানা বৃষ্টির জেরে পশ্চিম মেদিনীপুরের (Paschim Medinipur) একাধিক জায়গায় ভেঙে পড়েছে তিন মাটির দেওয়াল ।

যার জেরে মৃত্যু হয়েছে চারজতে দুই জলের তােড়ে চার চাকা গাড়ি ভেসে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে শালবনী ঠাকশাল সংলগ্ন চাথালে ।

গাড়ি ভেসে গেলেও স্থানীয়দের তৎপরতায় উদ্ধার করা হয় সেই গাড়ির চালককে ।

অনিডিকে রাতভর বৃষ্টির জেরে জলে ডুবে গিয়েছে খড়গপুর রেলস্টেশনও ।

জল জমেছে নিমপুরা রেল ইয়ার্ডেও । জলমগ্ন খড়গপুর শহরের রেলকলােনি সহ একাধিক এলাকা ।

অন্যদিকে , আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর ,

গভীর নিম্নচাপটি ক্রমশ শক্তি হারিয়ে একটি সুস্পষ্ট নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে ।

হওয়া দফতর সুত্রের আরও খবর আগামীকাল থেকেই পরিস্থিতি উন্নত হওয়ার  সম্ভাবনা রয়েছে ।

প্রসঙ্গত , এর আগে মঙ্গলবার টর্নেডাে দেখা গিয়েছিল বসিরহাট মহকুমার হাড়ােয়া ব্লকের তালবেড়িয়া গ্রামে ।

সেই টর্নেডাের দাপটে বেশ কিছু বাড়ি ভেঙে পড়ে ।

এমনকি কয়েকটি বিদ্যুতের খুঁটিও উপরে যায় এর ফলে । ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও প্রকাশ্যে আসেনি ।

স্থানীয় সূত্রের তরফে খবর , একাধিক বাড়ির টিনেক চাল এই ঝড়ে উড়ে অন্যত্র গিয়ে পড়ে ।

ঝড়ের দাপটে বেশ কয়েকজন আহতও হয় ।