পাকিস্তানে নতুন সরকার গঠনের পর থেকেই পাকিস্তানের রাজনীতিকে নিত্য নতুন মোড় নিতে দেখা গিয়েছে।পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী তথা পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) প্রধান ইমরান খানের (Imran Khan) যদি কিছু হয় তা হলে সরকারের উপর আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হবে বলে হুঁশিয়ারি দিলেন পিটিআই-এরই সাংসদ আতাউল্লা।

পেশোয়ার হাইকোর্ট গত ২ রা জুনই তিন সপ্তাহের জন্য ট্রানসিট জামিন দিয়েছে পিটিআই-র চেয়ারম্যানকে। ৫০ হাজার টাকার জামিন বন্ডের বিপরীতে এই জামিন মঞ্জুর করেছে। রানা সানাউল্লাহ বলেছেন, ইমরান খানকে (Imran Khan) দুই ডজনেরও বেশি মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছে। দাঙ্গা, রাষ্ট্রদ্রোহ, বিশৃঙ্খলা ও ফেডারেশনে সশস্ত্র হামলা সহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। এরপরই পাকিস্তানের বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন যে, ইমরান খানের (Imran khan) বানি গালার বাসভবনের সামনে নিরপত্তা বাহিনী মোতায়েন রয়েছে। আদালত কর্তৃক প্রদত্ত সুরক্ষামূলক জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে গ্রেফতার করা হবে।

সরকারে থাকাকালীন ইমরান খানের (Imran Khan) মুখে বার বারই শোনা গিয়েছিল, তাঁকে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। ক্ষমতা চলে যাওয়ার পরও বিরোধী দলের দিকে একই অভিযোগ তুলেছিলেন তিনি। ইমরানের উপর হামলার ষড়যন্ত্র চলছে, এ রকম জল্পনা আবার ছড়াতেই আতাউল্লা ভিডিয়ো বার্তায় ওই হুঁশিয়ারি দিলেন।

তাঁর এই মন্তব্য ঘিরে পাকিস্তানে রাজনৈতিক উত্তাপ বেড়েছে। পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী মারিয়াম অওরঙ্গজেব পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, “যাঁরা দেশের বিরোধিতা করছেন, এই দেশে তাঁদের থাকার অধিকার নেই। এই ধরনের লোকজনের সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক আলোচনার প্রশ্নই ওঠে না। রাজনীতিতেও এঁদের ঠাঁই দেওয়া উচিত নয়। দেশের যাঁরা ক্ষতি চাইছেন, তাঁদের গ্রেফতার করা হবে।”

আরও পড়ুন:MS Dhoni : ধোনিকে নিয়ে অজানা তথ্য ফাঁস করলেন তারকা ক্রিকেটার