নিউজপোল ডেস্ক: রানাঘাট রেলস্টেশন থেকে বলিউডের রুপোলি জগৎ, চমকপ্রদ উত্থান হয়েছে গায়িকা রানু মণ্ডলের। ভিক্ষুকের জীবন থেকে রাতারাতি স্টার হয়ে যাওয়া রানুকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রথমে মাতামাতি, তারপর শুরু হয়েছে ট্রোলিং। যে মানুষটি প্রথম তাঁর গান ভিডিও রেকর্ডিং করে তাঁকে বিখ্যাত করে তুলেছিলেন, কৃতজ্ঞতা স্বীকারের সময় তাঁর নাম না করে শুধু ঈশ্বরকেই ধন্যবাদ দিয়েছিলেন। এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই রানুকে অকৃতজ্ঞ তকমা দিয়েছেন। হিমেশ রেশমিয়ার ছবিতে তাঁর সঙ্গে প্রথম গানের পর রানুকে ট্রোল চলেছে যথেচ্ছ হারে। কিন্তু রানুর সঙ্গেও অবিচার হয়েছে। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, হিমেশই রানুর সঙ্গে অন্যায় করেছেন।

বলিউড গায়ক-সুরকার-অভিনেতার সঙ্গে প্রথম গান ‘তেরি মেরি কাহানি’-তে ওই দু’চার লাইন গাওয়ানো হয়েছিল রানুকে দিয়ে। বাকি সবটুকুই গেয়েছেন হিমেশ নিজে। এরপর আসে ‘আশিকি মে তেরি’র ট্রেলার। ট্রেলার দেখে মনে হয়, এই গানটিতে হয়তো অনেকটাই কণ্ঠ দিয়েছেন রানু। কিন্তু পূর্ণাঙ্গ গানটি রিলিজ হতে দেখা যায়, ট্রেলারে যেটুকু অংশ শোনা গেছে ঠিক ততটাই গোটা গানে গেয়েছেন রানু মণ্ডল। সেই অংশ গানের একদম শুরুতেই। পরের দিকে মহিলা কণ্ঠ শোনা গেলেও তা আদৌ রানুর নয়। গানের শুরুতেই ‘আ’ দিয়ে যে টান দিয়েছেন তা যন্ত্রসঙ্গীতে চাপা পড়ে গেছে।

রিয়্যালিটি শোয়ে পরিচয়ের পর হিমেশ যখন রানুকে দিয়ে তাঁর ছবিতে গান গাওয়ানোর কথা জানানোয় আনন্দ পেয়েছিল শ্রোতা-দর্শক। কিন্তু পরপর দুটি গানে গান গাওয়ানোর নাম করে রানু মণ্ডলকে এভাবে হাস্যাস্পদ করে তোলা হিমেশের অন্যায় হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। নতুন গানটি নিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল শুরু হল বলে।