নিউজপোল ডেস্কঃ চলতি আইএসএলে নিম্নমানের রেফারিং নিয়ে সরব হতে দেখা গিয়েছে একাধিক দলকে। গত রবিবার জামশেদপুর এফসি’র বিরুদ্ধে রেফারিং নিয়ে প্রতিবাদ করতে গিয়ে বেফাঁস এবং অশালীন মন্তব্য করে চাকরি খুঁইয়েছেন ওডিশা কোচ স্টুয়ার্ট বাক্সটার। আর এবার রেফারিং নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিতেই চার ম্যাচ সাসপেন্ড হলেন এসসি ইস্টবেঙ্গল কোচ রবি ফাওলার। সেই সঙ্গে পাঁচ লক্ষ টাকা জরিমানাও ধার্য করেছে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন।

মরশুমের শুরু থেকেই দুর্ভাগ্য যেন পিছু ছাড়ছে না ইস্টবেঙ্গলের। একদম শেষ লগ্নে ইস্টবেঙ্গল ম্যানেজমেন্ট যেভাবে টালমাটাল পরিস্থিতিতে ইনভেস্টার জোগাড় করে আইএসএলের ছাড়পত্র জোগাড় করেছে তা সকলেই জানেন। এমন পরিস্থিতিতে লিগের সূচনাটাও মনমতো হয়নি সমর্থকদের। এইমুহূর্তে দলের অবস্থান লিগ টেবিলের দশম স্থানে। অল্প সময়ে দল গঠন করে মাঠে নেমে সেভাবে নিজেদের মেলে ধরতে পারছে না লাল হলুদ ব্রিগেড। তাঁর ওপর বেশ কয়েকটি ম্যাচে ফেরারির সিদ্ধান্ত গিয়েছে গোটা দলের বিরুদ্ধে। যা নিয়ে বার বার ক্ষোভ উগড়ে দিতে দেখা গেছে দলের কোচ রবি ফাউলারকে। একই কারনে এফসি গোয়া ম্যাচে রেফারিদের সঙ্গে বিতর্কে জড়ান তিনি। রেফারিদের ব্রিটিশ বিদ্বেষ অথবা ইস্টবেঙ্গল বিদ্বেষ নিয়ে মন্তব্য করেন তিনি। ফেডারেশনের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির ধারা অনুযায়ী রবি ফাওলারকে ৫০, ৫৮, ৫৯.১ (A) ধারায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। যার ফলস্বরূপ চার ম্যাচের সাসপেনশন সঙ্গে পাঁচ লক্ষ টাকা জরিমানা হয়েছে তাঁকে। ফেডারেশনের প্রধান আইনজীবী ঊষানাথ বন্দোপাধ্যায় এই শাস্তি নির্ধারণ করেছেন।

এই মুহূর্তে লিগ টেবিলের যা অবস্থা তাতে বলাই যায় এবছর শেষ চারে ওঠার সম্ভাবনা কার্যত শেষ ইস্টবেঙ্গলের। এমতাবস্থায় শেষ পাঁচটি ম্যাচে ভালো পারফর্ম করে সসম্মানে মরশুম শেষ করার লক্ষ্যে মাঠে নামবে দল। কিন্তু তার আগে ফেডারেশনের এমন সিদ্ধান্তে বিপাকে লাল হলুদ শিবির। নির্বাসনের জেরে আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি এটিকে-মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ডার্বি ম্যাচেও ডাগ-আউটে বসতে পারবেন না ব্রিটিশ কোচ। এছাড়াও জামশেদপুর, হায়দরাবাদ, ও নর্থ ইস্ট ম্যাচেও গ্যালারিতে বসেই দেখতে হবে ফাউলারকে। ২৭ ফেব্রুয়ারি ওডিশা এফসি’র বিরুদ্ধে লিগের শেষ ম্যাচে ফের ডাগ-আউটে বসতে পারবেন তিনি। কিন্তু নির্বাসন কাটিয়ে মাঠে ফিরলেও ফাউলারের উপর কড়া নজর রাখা হবে এমনটাই জানিয়েছে ফেডারেশন।