অ্যালার্জি খুব চেনা সমস্যা আমাদের এই সমাজে। তার মধ্যে বেশি যেটা দেখা দেয় তা হল ডাস্ট অ্যালার্জি (dust allergy), যা মূলত ধুলোবালি থেকে হয়ে থাকে। এর কারণে বাড়াবাড়ি রকমের অ্যালার্জি হলে শ্বাস বন্ধ হয়ে আসে, ত্বকে র‌্যাশও দেখা যায় অনেকের ক্ষেত্রে। আর এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে কাজে আসতে পারে নিয়মিত কিছু খাবার।

রাস্তাঘাটে বেরোনো হোক কিংবা ঘরের জিনিস পরিষ্কার করা, যে কাজই করুন না কেন, হাঁচি-কাশি একেবারে নিশ্চিত। ধুলোবালির প্রভাবে অ্যালার্জি থাকলে এমনটা হওয়া স্বাভাবিক। কারও কারও ক্ষেত্রে চোখ থেকে অনবরত জল পড়াও ডাস্ট অ্যালার্জির অন্যতম লক্ষণ। ধুলোর মধ্যে থাকা নানা আনুবীক্ষণিক জীবের হানায় শরীরে এমন সমস্যা হয়ে থাকে।

বাড়াবাড়ি রকমের অ্যালার্জি হলে শ্বাস বন্ধ হয়ে আসে, ত্বকে র‌্যাশও দেখা যায় অনেকের ক্ষেত্রে।এই রোগের শিকার হলে চিকিত্‍সকের কাছ থেকে পরামর্শ নেওয়াই শ্রেয়। বিশেষ কিছু ওষুধপত্র খেলে ও নিয়ম মেনে চললে এই অসুখ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব।

তবে চিকিত্‍সার পাশাপাশি খাওয়ার পাতেও রাখতে হবে এমন কিছু উপাদান, যা অ্যালার্জির সমস্যার বিরুদ্ধে শরীরে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলবে। চুলুন দেখে নেওয়া যাক সে খাবারগুলো কী কী-

প্রতি দিন চা-কফির অভ্যাসে বিরতি দিন। দিনে দু’ তিন বার গ্রিন টি-তে অভ্যস্ত হয়ে উঠুন। এর অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট অ্যালার্জির সমস্যার সঙ্গে লড়তে সাহায্য করে। চোখে লাল ভাব, র‌্যাশ বেরোনোর সমস্যা রুখতে এটি বিশেষ কার্যকর।

খাওয়ার পাতে রাখুন টক দই, ছানা, লাস্যি। এদের প্রোবায়োটিক উপাদান অসুখের জীবাণুর সঙ্গে যেমন লড়ে, তেমনই শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। সুতরাং, ধুলোবালি থেকে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে।

হলুদের অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল গুণ অ্যালার্জি প্রতিরোধে সাহায্য করে। আপনার ধুলোবালিতে অ্যালার্জি থাকলে রোজ নিয়ম করে গরম দুধে এক চা চামচ হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে খাওয়ার অভ্যাস করুন, উপকার পাবেন।

আরো পড়ুন:  Headache: এই খাবারগুলো খেলে নিয়ন্ত্রণে থাকবে মাথা ব্যথা, জানুন বিস্তারিত