নিউজপোল ডেস্কঃ সলমন খান নিজের দেহরক্ষীদের বেশ খেয়াল রাখেন। তাই এত ব্যস্ততার মধ্যেও উপস্থিত হন তাঁর এক দেহরক্ষীর জন্মদিনে । কোভিড প্রোটোকল মেনেই মাস্ক পরে, দূরত্ব বজায় রেখেই সেলেব্রেট হচ্ছিল দেহরক্ষীর জন্মদিন। তবে ভাইজানের সেই দেহরক্ষী এক টুকরো কেক কেটে তাঁর দিকে বাড়িয়ে দেন। কিন্তু সলমন সেই কেক মুখের কাছে নিয়েও ফিরিয়ে দেন। সেই ভিডিওই এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, আকাশি রঙের টি- শার্ট পরে বডিগার্ড জগ্গির জন্মদিনের হ্যাপি বার্থডে গান গাইছেন সল্লু ভাই। সেখান অভিনেতার সঙ্গে গলা মিলিয়েছেন তাঁর সিকিউরিটি টিমের অন্যান্য সদস্যরাও। কিন্তু কোভিডের নিয়ম মেনে দূরত্ব বজায় রেখে জগ্গি কেক কেটে ভাইজানকে খাওয়াতে গেলে স্বাস্থ্য সচেতন সল্লু মিঁঞা মুখ ফিরিয়ে নেন। কেক না খেয়েও বলেন ‘দুর্দান্ত খেতে’। অভিনেতার টিম বিষয়টি হেসে হ্যান্ডেল করে নিলেও নেটিজেনদের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে সল্লু ভাইয়ের।

তবে বডিগার্ড’ শব্দটা সলমন খানের জীবনের সঙ্গে বেশ অঙ্গাঅঙ্গিভাবে জড়িত। সে রিল লাইফ হোক বা রিয়েল লাইফ। ২০১১ সালে সলমনের সুপারহিট ‘বডিগার্ড’ ছবিতে একজন দেহরক্ষী ভূমিকায় অভিনয় করে ফ্যানেদের কাছে প্রশংসা কুড়ান। এদিকে রিয়েল লাইফে তাঁর সঙ্গে সবসময় থাকে এক সিকিউরিটি টিম। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন দীর্ঘদিনের বডিগার্ড শেরা। ত এক সাক্ষাৎকারে শেরা জানিয়েছিলেন, যতদিন বাঁচব, ভাইয়ের সঙ্গেই থাকব। শেরা এও জানান, তিনি সবসময় ভাইজানের সামনে থেকে বিপদের মোকাবিলা করেন। এমনকি সলমনের ‘বডিগার্ড’ ছবিতে দেহরক্ষীর ভূমিকা অভিনয়ের জন্য অনেক সাহায্য করেছিলেন। একথা এক সাক্ষাৎকারে নিজেই স্বীকার করেছিলেন সল্লু মিঁঞা।