পারলেন না অমিত পঙ্ঘাল এবং শিবা থাপা। তবে ভারতীয় বক্সিংপ্রেমীদের মুখে হাসি ফোটালেন সঞ্জিত। এশীয় বক্সিং প্রতিযোগিতায় পুরুষ বিভাগে সোনা জিতলেন তিনি।

৯১ কেজি বিভাগের ফাইনালে সোমবার দুবাইয়ে তিনি মুখোমুখি হয়েছিলেন এই প্রতিযোগিতায় তিন বারের সোনাজয়ী কাজ়াখস্তানের ভ্যাসিলি লেভিতের বিরুদ্ধে। কিন্তু তাঁকে ৪-১ ফলে হারিয়ে সোনা জিতে নেন এই ভারতীয় বক্সার। সেনা কর্মী সঞ্জিত প্রথম দু’রাউন্ডেই লেভিতকে কোণঠাসা করে ফেলেছিলেন।

অন্য ম্যাচে, আশাব্যঞ্জক লড়াই করেও শেষ পর্যন্ত সোনা জয় হল না অমিত পঙ্ঘালের। রুপো পেয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হল তাঁকে। যদিও ভারতীয় দল এই ফল নিয়ে সন্দিহান। ম্যাচের পরেই পুনর্মূল্যায়ণ (রিভিউ) চেয়ে আবেদন করেন তাঁরা। তবে ভারতের সেই আবেদন গ্রাহ্য হয়নি।

৫২ কেজি বিভাগের ফাইনালে অমিতের প্রতিপক্ষ ছিলেন উজ়বেকিস্তানের শাখোবিদিন জইরভ। যিনি বর্তমান বিশ্বজয়ী ও রিয়ো অলিম্পিক্সে সোনা জয়ী। দু’বছর আগে, ২০১৯ সালে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে তাঁর কাছে হেরেই রুপো পেয়েছিলেন অমিত। আশা করা গিয়েছিল, উজ়বেক প্রতিদ্বন্দ্বীকে এ বার কঠিন পরীক্ষার মুখে ফেলে দেবেন তিনি। কিন্তু এ বারও হারলেন অমিত। ম্যাচের ফল শাখোবিদিনের পক্ষে ৩-২। ৬৪ কেজি বিভাগের ফাইনালে ভারতের শিবা থাপার প্রতিপক্ষ ছিলেন গত এশিয়ান গেমসে রুপো জয়ী মঙ্গোলিয়ার বাতারসুখ শিনজোরিং। শিবাও হারেন ২-৩ ফলে।

এ বারের প্রতিযোগিতায় অন্য বারের চেয়ে ভাল ফল করেছেন ভারতীয় বক্সারেরা। ২০১৯ সালে এশীয় চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে ১৩টি পদক পেয়েছিলেন তাঁরা। যার মধ্যে ছিল দু’টি সোনা। এ বার ১৫টি পদক-সহ ফিরবেন ভারতীয় বক্সারেরা। যার মধ্যে দু’টি সোনা।