নিউজপোল ডেস্ক: আট থেকে আশি, নেটদুনিয়ার জালে বন্দি। ভার্চুয়াল এই বিশ্বের কোনওকিছুই যে স্থায়ী নয়, তা ইয়াহু-র দুরবস্থার খবর পেলেই বোঝা যায়। একসময় মেল, বিজ্ঞাপন, ভিডিও কিংবা বিভিন্ন খবরাখবরের একমাত্র ঠিকানা ছিল ইয়াহু। মানুষের সেই আগ্রহ এখন নেই বললেই চলে। প্রতিযোগিতার বাজারে বহুগুণ এগিয়ে গেছে গুগল। এই কারণেই গতবছর ইয়াহু মেসেঞ্জার বন্ধ করেছিল সংস্থাটি। এবার ১৮ বছরের পুরনো ইয়াহু গ্রুপের মাধ্যমে ছবি, ভিডিওর মতো কনটেন্ট আদানপ্রদান করা যাবে না বলেই জানিয়েছে সংস্থাটি।

গুগল-এর জনপ্রিয়তা এখন আকাশছোঁয়া। পিছিয়ে পড়ছে ইয়াহু। ফলে সংস্থাটি এক এক করে বন্ধ করছে তাদের অন্যান্য পরিষেবাগুলি। এর আগে ইয়াহু মেসেঞ্জার বন্ধ হয়েছে। এবার ইয়াহু গ্রুপের পালা! ২০০১ সালে শুরু হয়েছিল এর যাত্রা। সোশ্যাল মিডিয়ার ঝড় আসেনি তখনও। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার বাড়বাড়ন্তে ধীরে ধীরে ইয়াহু গ্রুপ জনপ্রিয়তা হারিয়েছে। তাই সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, আগামী ২১ অক্টোবর থেকে কোনওরকম কনটেন্ট আপলোড করা যাবে না এই গ্রুপে। ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যবহারকারীরা সুযোগ পাবেন তাঁদের প্রয়োজনীয় কনটেন্ট ডাউনলোড করার। তারপর চিরতরে মুছে ফেলা হবে ব্যবহারকারীদের সেই সব তথ্য। তবে সংস্থার তরফে পুরোপুরি বন্ধ করার কথা জানানো হয়নি। ফটো, ভিডিও, পোল, লিঙ্ক বা কোনও ফাইল আদানপ্রদান করা না গেলেও ই-মেলের মাধ্যমে ব্যবহার করা যাবে ইয়াহু গ্রুপ, এমনই ঘোষণা করেছে ইয়াহু।