(SpiceJet) ফের এক ভয়াবহ বিমান দূর্ঘটনার সাক্ষী হয়ে রইল যাত্রীরা। বরাতজোরে রক্ষা পেয়েছেন তারা। রবিবার দুপুরে দিল্লিগামী স্পাইসজেটের বিমানে আচমকাই আগুন ধরে যায়। সূত্রের খবর, পাটনা থেকে দিল্লিগামী একটি স্পাইসজেটের বিমান টেক অফ করার পরই মাঝ আকাশে আগুন লেগে যায়। বিমানে মোট ১৮৫ জন যাত্রী ছিল বলে জানা গিয়েছে। যদিও পাইলটের তৎপরতায় বড়সড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছেন সকলেই এমনটাই জানা গিয়েছে। নিরাপদে বিমানটিকে ফের পাটনা বিমানবন্দরে ল্যান্ড করানো সম্ভব হয়েছে পাইলটের উপস্থিত বুদ্ধির জন্যে। কোনও হতাহতের খবর মেলেনি এখনও অবধি। জানা গিয়েছে, ইঞ্জিনে যান্ত্রিক ত্রুটির জেরেই এই ভয়াবহ দূর্ঘটনাটি ঘটেছিল।

SpiceJet: SpiceJet passengers witness a horrific plane crash
ভয়াবহ বিমান দূর্ঘটনার সাক্ষী স্পাইস জেট যাত্রীরা

পাটনা বিমানবন্দরের এক আধিকারিক জানান, প্রত্যেক যাত্রীকে নিরাপদে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। মাঝ আকাশে ইঞ্জিনের সমস্যার জেরে একটা দূর্ঘটনা ঘটেছিল। কিন্তু, পাইলট দ্রুত এটিসি-র সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তারপর তাঁর তৎপরতায় বিমানটির এমারজেন্সি ল্যান্ডিং করানো হয়। পাটনা বিমানবন্দরে ফিরিয়ে আনা হয় বিমানটি। জেলাশাসক চন্দ্রশেখর সিং বলেন, “বিমানটি টেক আফ করার পর স্থানীয়রাই মাঝ আকাশে বিমান থেকে ধোঁয়া বেরতে দেখেন। তারাই স্থানীয় প্রশাসন এবং এয়ারপোর্ট কর্তৃপক্ষকে খবর দেন। যান্ত্রিক ত্রুটির জেরেই এই সমস্যা দেখা দিয়েছে। ঠিক কী কারণে আগুন লাগার মতো ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”

 

SG 723 নম্বর স্পাইসজেটের(SpiceJet) বিমানটি বেলা ১২টা ৪ মিনিট নাগাদ টেক অফ করে। এরপর আচমকাই মাঝ আকাশে গিয়ে বিপত্তি ঘটে।

 

সম্প্রতি স্পাইসজেট বিমান সংস্থার বিরুদ্ধে খামখেয়ালিপনায় অভিযোগ ওঠে। চরম হয়রানির শিকার হন রোগী ও তাঁর পরিজনরা। চেন্নাই থেকে অন্ডালেফেরার জন্য স্পাইসজেট (SpiceJet) বিমানের টিকিট কাটলেও আসেনি উড়ান।