মহানবমীতে কলকাতার বুর্জ খলিফা পরিদর্শনের পরিকল্পনা করেছেন? তবে আপনার জন্য রয়েছে দুঃসংবাদ। কারণ, লেজার শো’র পর এবার শ্রীভূমি স্পোর্টিংয়ের (Sreebhumi Sporting) পুজো মণ্ডপে দর্শনার্থী প্রবেশে জারি নিষেধাজ্ঞা। অতিরিক্ত ভিড় সামলাতে বিধাননগর কমিশনারেটের তরফে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বাড়তি ঝুঁকি না নিয়ে অষ্টমীর রাতেই ফাঁকা করে দেওয়া হয় মণ্ডপ চত্বর।

চলতি বছরের পুজোয় শ্রীভূমি স্পোর্টিংয়ের (Sreebhumi Sporting) পুজো নিয়ে উন্মাদনা তুঙ্গে। কারণ একটাই। মন্ত্রী সুজিত বসুর পুজোর থিমই মন কেড়েছে সকলের। দুবাইয়ের বুর্জ খলিফার আদলে তৈরি হয়েছে মণ্ডপ। কাচ এবং অ্যালুমিনিয়ামের প্লেট দিয়ে তৈরি হয়েছিল বুর্জ খলিফা।

অভিনব মণ্ডপের পাশাপাশি মাতৃপ্রতিমাও নজরকাড়া। ৪৫ কেজি সোনার গয়নায় সেজে উঠেছে প্রতিমা। যার বাজারদর প্রায় ২০ কোটি টাকা।

সবমিলিয়ে তাই কলকাতায় বুর্জ খলিফা দেখার আগ্রহও ছিল অন্যরকম। তবে উত্তেজনার মাঝেও বারবারই শ্রীভূমি স্পোর্টিংয়ের মণ্ডপ নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক।

প্রথমে লেজার লাইটের দিকে আঙুল ওঠে। কলকাতার বুর্জ খলিফার লেজার শো’র ফলে বিমান চলাচলে সমস্যা হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে।

তাই সপ্তমীর রাতেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল শ্রীভূমি স্পোর্টিংয়ের মণ্ডপের মোহময়ী লেজার শো। বুধবার অষ্টমীর রাতে রাশ টানা হয় আলোতেও।

তবে অষ্টমীর বিকেল থেকে ভিড় যেন সামাল দেওয়া কার্যত অসম্ভব হয়ে পড়েছে। দর্শনার্থীদের চাপে ভিআইপি রোড কার্যত অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। একাধিক বাস এবং অটো রুট ঘুরিয়ে দেওয়া হয়। সন্ধের পর কার্যত জনস্রোত বয়ে যায় শ্রীভূমির মণ্ডপের সামনে।

সেই কারণেই আলো বন্ধের পর দর্শনার্থী প্রবেশেও নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। শুধুমাত্র পাড়ার বাসিন্দারাই মণ্ডপে প্রবেশ করতে পারবেন বলেই জানানো হয়েছে।