নিউজপোল ডেস্ক: বাপের বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়িতে ফেরেননি স্ত্রী। তারই জেরে রাগে স্ত্রীর বাপের বাড়ি আগুনে পুড়িয়ে দিলেন স্বামী। গত বৃহস্পতিবার রাতে এমনই ঘটনা ঘটল উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটা থানার দাসপাড়া এলাকায়।

ঘড়ির কাঁটা রাত ১০টা। বাড়ির সবাই তখন ঘুমনোর তোড়জোড় করছেন। হঠাৎই বাড়ির চারপাশে আগুন জ্বলতে দেখা যায়। ভয়ে বাড়ির সবাই রাস্তায় এসে দাঁড়ান। কিন্তু প্রশ্ন হল, কী করে বাড়িতে আগুন লাগল? মেয়ের বাবা অশ্বিনী সর্দার জানালেন, ‘পাড়ার সবাই দেখেছে আমার জামাই মাধব মণ্ডল আমাদের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে পালিয়েছেন। কারণ মেয়েকে শারীরিক ভাবে অত্যাচার করেন তিনি। আর তার জন্যই শ্বশুর বাড়িতে মেয়ে যেতে চায়নি।’ অশ্বিনী আরও বলেন, ‘এর আগেও এমন অনেক বার অত্যাচারের জন্য চলে এসেছিল শ্বশুর বাড়ি থেকে। কিন্তু তাও জামাই বুঝিয়ে নিয়ে গেছে। কিন্তু এবার যায়নি বলে রাতের অন্ধকারে জামাই আমাদের ঘরে আগুন লাগিয়ে দিলেন।’ উৎসবের মরসুমে বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার ফলে, ক্ষয় ক্ষতির পরিমাণও দ্বিগুণ হয়েছে বলে জানান মেয়ের পরিবার। তবে এই ঘটনার বিষয়ে মেয়ের কাছে জানতে চাইলে তিনি কথা বলতে চাননি। কিন্তু এমন ঘটনার কারণে পরিবার এবং প্রতিবেশীরা মিলে থানায় অভিযোগ জানায়। ঘটনার পর থেকে জামাই মাধব মণ্ডল পলাতক।