শেষ বার জাতীয় টিমের হয়ে খেলেছিলেন পাঁচ বছর আগে। জর্জিয়ার বিরুদ্ধে টিম সুইডেন জিতল তাঁর পাসে। ৩৫ মিনিটে ভিক্টর ক্লায়েসনকে গোল করালেন ইব্রা। এই জয় সুইডেনের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল। না জিতলে চাপে পড়ে যেত ইব্রার দেশ। সেটা হতে দিলেন না এসি মিলানের স্ট্রাইকার।

প্রাক বিশ্বকাপের ম্যাচে শুরু থেকে খেলেন তিনি। ৩৯ বছরেও যে ইব্রা অনেক কিছু দিতে পারেন, তার ছাপ রাখলেন ম্যাচের পরতে পরতে। ম্যচের পর ইব্রা বলেছেন, ‘মাঠে নামার আগে কোনও চাপ ছিল না। তবে আমি রোমাঞ্চিত ছিলাম।’

২০১৬ সালে ইউরো কাপের গ্রুপ লিগ থেকে ছিটকে যাওয়ার পর জাতীয় টিম থেকে অবসর নিয়েছিলেন। কিন্তু রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে অবসর ভেঙে ফিরে আসতে চেয়েছিলেন। তা আর হয়নি। কিন্তু বর্ষীয়ান স্ট্রাইকারকে এ বার ফিরিয়েছেন সুইডেন কোচ। জাতীয় টিমে ফিরে নিরাশ করেননি ইব্রা। ম্যাচ নিয়ে বলেছেন, ‘কঠিন লড়াই করেছি আমরা। টিম হিসেবেই মাঠে নেমেছিলাম। তবে একটাই ভুল করেছি, জর্জিয়াকে বেশি সম্মান করে ফেলেছিলাম। কঠিন ম্যাচ ছিল। তবে তিনটে পয়েন্ট নিয়ে ঘরে ফিরতে পারছি, এটাই বড় ব্যাপার।’

জয় পেলেও তেমন নজরকাড়া ফুটবল খেলতে পারেনি সুইডেন। তবে টিম হিসেবে আরও জমাট হওয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন ইব্রা।