নিউজপোল ডেস্ক: টিকটক নিয়ে ব্যবহারকারীদের আগ্রহের শেষ নেই। পুলিশের গাড়ি ব্যবহার করে দুঃসাহসিক ভিডিও বানানোর নজির যেমন রয়েছে, তেমনই হাসপাতালের ভেতরে নার্সদের নাচতেও দেখা গেছে টিকটকের দৌলতে। এবার থানার মধ্যে নাচের দৃশ্য প্রকাশ্যে এল। গুজরাটের এক মহিলা পুলিশের সেই টিকটক ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। এই ঘটনার পর অর্পিতা চৌধুরি নামে ওই পুলিশ আধিকারিককে সাসপেন্ড করা হয়েছে।

ভিডিওটিতে দেখা গেছে গুজরাটের মেহসানা জেলার লঙ্ঘনজ থানার ছবি। ওই থানার লকআপের সামনেই গানের সঙ্গে ঠোঁট মিলিয়ে নাচছেন অর্পিতা চৌধুরি। চলতি বছরের ২০ জুলাই ভিডিওটি শুট করা হয়েছিল। সোশ্যাল মিডিয়া এবং হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে মুহূর্তেই সেই টিকটক ভিডিওটি ভাইরাল হয়। প্রশাসনিক দফতরের চোখে পড়তেই তৎক্ষণাৎ অর্পিতার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হয়। ডেপুটি সুপারিন্টেন্ডেন্ট অফ পুলিশ (ডিএসপি) মঞ্জিথা বানজরা বলেন, ‘অর্পিতা চৌধুরি পুলিশের নিয়ম লঙ্ঘন করেছেন। প্রথমত, কর্তব্যরত অবস্থায় তিনি পুলিশের পোশাক পরেননি। দ্বিতীয়ত, তিনি এই ভিডিওটি শুট করেছেন লঙ্ঘনজ ভিলেজ থানার ভেতরেই। পুলিশ আধিকারিকদের ক্ষেত্রে নিয়ম মানা বাধ্যতামূলক। তিনি যেহেতু নিয়ম লঙ্ঘন করেছেন, তাই তাঁকে সাসপেন্ড করা হল।’ অর্পিতার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিয়েছে প্রশাসন, এমনই মত নেটিজেনদের একাংশের।
বিতর্কিত অ্যাপ টিকটক ভিডিও নিয়ে একাধিক অভিযোগ উঠেছে এর আগেও। এমনকী, বন্দুকের গুলিতে এক যুবকের প্রাণ হারানোর ঘটনাও ঘটেছে। মাসখানেক আগে হাসপাতালের মধ্যে ওড়িশার কয়েকজন নার্সের নাচের ভিডিও নিয়েও শোরগোল পড়েছিল। এই অভিযোগে চারজন নার্সকে শো-কজ করেছিলেন ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য আধিকারিক। এই পরিস্থিতিতে অর্পিতা চৌধুরির সাসপেন্ডের ঘটনা যেন টিকটক ব্যবহারকারীদের আরও একবার সতর্ক করল।