দক্ষিণবঙ্গের পর এবার প্রকৃতির রোষ পড়ছে উত্তরবঙ্গে(North Bengal)। ক্রমশ বাড়ছে তিস্তার গর্জন।

বাংলার উপর থেকে দুর্যোগের ছায়া যেন আর সড়ছেই না। একের পর এক নিম্নচাপ লেগেই রয়েছে বাংলায়।

গত কয়েকদিনের লাগাতার বৃষ্টিতে(rain) দক্ষিণবঙ্গে যে বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিয়েছিল, তার ধাক্কা এখনও পুরোপুরি সামলে উঠতে পারেনি মানুষ।

পুজোর চারদিন রেহাই মিললেও, পুজোর পরে আর নিস্তার নেই। উত্তরবঙ্গে(North Bengal) তিস্তা নদীতে আচমকাই হচ্ছে জলস্ফীতি। যার জেরে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে উত্তরবঙ্গে, অসুবিধায় পড়ছেন বহু মানুষ।

পরিস্থিতি সরেজমিন তদন্ত করতে তিস্তা নদী সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকা নিজের দল নিয়ে সারা রাত তদারকি চালালেন পুলিশ সুপার।

জলপাইগুড়ির(Jalpaiguri) তিস্তা ব্রিজ সংলগ্ন বিবেকানন্দ পল্লিতে প্রায় হাজার চারেক মানুষের বসবাস। সূত্রের খবর, সেই এলাকায় এখন জল ঢুকতে শুরু করেছে তিস্তা নদীর।

খবর পেয়ে রাতেই সেখানে টিম নিয়ে পৌঁছে যান পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত।

পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন তিনি ও তাঁর পুরো টিম।

এরপর স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে অস্থায়ী বাঁধ মেরামতের কাজে হাত লাগায় পুলিশও।

এদিন রাতে জলপাইগুড়ির বিবেকানন্দ পল্লিতে উপস্থিত ছিলেন ডিএসপি হেডকোয়ার্টার সমীর পাল ও আইসি কোতোয়ালি অর্ঘ্য সরকার।

স্থানীয় বাসিন্দাদের নিরাপদ তথা কিছুটা উঁচু স্থানে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।

এর পাশাপাশি, তিস্তার মৌয়ামারি চড়ে আটকে রয়েছেন প্রায় দুই শতাধিক পরিবার।

Teesta is overflowing flood situation is happening in North Bengal
উত্তরবঙ্গে তিস্তার জল ঢুকছে ঘরে

সেখানেও রাতেই পৌঁছে যায় পুলিশবাহিনী। আটকে থাকা মানুষদের সেখান থেকে উদ্ধারের ব্যবস্থাও করেন তারা।

দুর্গতদের উদ্ধারের জন্য নামানো হয়েছে এনডিআরএফ দল এমনটাই জানায় স্থানীয় পুলিশ(local police)।

তাদের মাধ্যমে দুর্গত এলাকায় পানীয় জলও পাঠানো হচ্ছে।

এত খারাপের মাঝেও কিছুটা স্বস্তির খবর দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

নিম্নচাপ বিহারের দিকে সরে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার থেকেই আকাশ কিছুটা পরিষ্কার হতে শুরু করবে।

রাতের দিকে তাপমাত্রা কমতে পারে স্বাভাবিকের থেকে ২ থেকে ৩ ডিগ্রি।

ফলে অক্টোবর থেকেই ধীরে ধীরে শীতের আমেজ উপভোগ করবে শহরবাসী।

তবে, উপকূলের জেলাগুলিতে বহাল থাকবে ভারী বৃষ্টি।তবে উত্তরবঙ্গের(North Bengal) দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

এছাড়া মালদহ ও দুই দিনাজপুরেও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন –

UP: কোন কৌশলে উত্তর প্রদেশ জিতছে চাইছে কংগ্রেস