হাসপাতালের কার্নিশ থেকে পড়ে যাওয়ার প্রায় সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা পরে মারা গেলেন সুজিত অধিকারী। শনিবার সকালে মল্লিকবাজারের এক বেসরকারি হাসপাতালের কার্নিশে উঠে পড়েন তিনি। হাসপাতাল কর্মীদের দাবি, স্নায়ুরোগে আক্রান্ত ওই ব্যক্তি আত্মহত্যা করবেন বলে হুমকি দিচ্ছিলেন, তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করছিলেন হাসপাতালের কর্মীরা।

শনিবার দুপুরে কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালের কার্নিশে প্রায় ঘণ্টা দেড়েক বসেছিলেন সুজিত। তার পর কার্নিশের ঝুলতে ঝুলতে হঠাৎই তাঁর হাত ফস্কে যায়। আটতলা থেকে নীচে পড়ে মাথায়, বুকে গুরুতর চোট ও আঘাত পান সুজিত। শরীরের বহু জায়গায়ও আঘাত লেগেছিল। আইটিইউ-তে নিয়ে যাওয়া হলেও শনিবার সন্ধ্যায় সাড়ে ৬টা নাগাদ মৃত্যু হয় তাঁর।

দেড় ঘণ্টা ধরে বহু চেষ্টা করে দমকল, পুলিশ, ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট-এর দল। কিন্তু তার আগেই আট তলার কার্নিশ ফসকে নীচে পড়ে যান। হাসপাতাল সূত্রে খবর, ৩৩ বছরের সুজিতের ‘এপিলেপ্টিক ফিট’ ছিল। শনিবার সকালে তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছাড়ার কথা ছিল। ঘণ্টা দেড়েক ধরে কার্নিশে বসে থাকার পর এক সময় কার্নিশ ধরে ঝুলতে থাকেন। তাঁর কিছু ক্ষণের মধ্যেই হাত ফস্কে নীচে পড়ে যান। দমকলে চেষ্টা সত্ত্বেও নীচে পড়া থেকে আটকানো যায়নি।

আরও পড়ুন : Kanchan Mullick: আবারও বিতর্কের মুখে অভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক