নিউজপোল ডেস্কঃ আজ রাজ্যজুড়ে ১২ ঘণ্টার ধর্মঘট। ধর্মঘটের ডাক দেয় বামফ্রন্ট। সেই বনধকে সমর্থন করে কংগ্রেসও।

উল্লেখ্য, বামপন্থী যুব ও ছাত্র সংগঠনের নবান্ন অভিযান। আর সেই নবান্ন অভিযান ঘিরে তুলকালাম বাধে। পুলিশের জলকামান ছোড়া, টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটানো, তারপর বেধড়ক লাঠিচার্জ। পুলিশের দাবি, বিক্ষোভকারীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়ে। ফলে দু’পক্ষের অনেকেই জখম হন। আর পুলিশের এই আচরণের প্রতিবাদে আজ, শুক্রবার রাজ্য জুড়ে চলছে ধর্মঘট। 

bandh এর ছবির ফলাফল

ধর্মঘটের পাশাপাশি আজ, শুক্রবার প্রথম খুলেছে স্কুল। করোনার জেরে প্রায় ১১ মাস পর স্কুল খোলে। সরকারের তরফে এও জানানো হয়েছে, সরকারি অফিসে হাজিরাও বাধ্যতামূলক করেছে। বনধ ব্যর্থ করতে রাস্তায় নেমেছে পুলিশ। তারই মধ্যে বামফ্রন্টও রাস্তায় নামে বনধ সফল করতে। এনিয়ে বেশ টানটান উত্তেজনা চলছে এই মুহূর্তে। 

ধর্মঘটের জন্য কোথাও রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ করা হয়। কোথাও অবরোধ করা হয় রেল। ব্যাঙ্ক, পোস্ট অফিস থেকে সরকারি অফিস – সর্বত্রই দলীয় পাতাক বেঁধে দেওয়া হয়। চেষ্টা করা হয় বন্ধ করার। দোকানপাট বন্ধের জন্যও আবেদন জানান, বনধ সমর্থকারীরা। দোকানপাটও প্রায় সবই খোলা। সরকারি অফিস থেকে স্কুল – সর্বত্রই হাজিরাও ছিল।