গত সপ্তাহেই জানানো হয়েছিল পড়ুয়াদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে বাকি পরীক্ষা বাতিল করা হলেও দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা বাতিল করা হবে না। কিন্তু প্রতিনিয়ত রাজ্যে যে হারে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে বাধ্য হযে সেই পরীক্ষাও অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত রাখতে বাধ্য হল ত্রিপুরা সরকার।

১ মে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ টুইট করে জানান, ত্রিপুরা বোর্ড অব সেকেন্ডারি এডুকেশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা স্থগিত রাখা হচ্ছে অনির্দিষ্টকালের জন্য। পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলছি যে, আপনারা পরীক্ষার জন্য প্রস্তুত থাকুন, পরিস্থিতি অনুকূল হলেই পরীক্ষা নেওয়া হবে।

এর আগে ২৫ এপ্রিল শিক্ষামন্ত্রীই জানান, নির্ধারিত দিন অর্থাৎ ১৮ মে থেকেই দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা শুরু হবে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে বিশেষ কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। পরাক্ষার্থীদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব, বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে রাজ্য শিক্ষা দফতর সমস্ত সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত, বেসরকারি ও মাদ্রাসার দশম ও দ্বাদস শ্রেণির প্রি-বোর্ড পরীক্ষা অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

একইসঙ্গে তিনি সমস্ত সরকারি, বেসরকারি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলির সেমেস্টার পরীক্ষা পরবর্তী সূচি না দেওয়া অবধি স্থগিত রাখার ঘোষণাও করেন। এর আগে করোনা সংক্রমণের কারণেই তৃতীয় থেকে নবম ও একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষা স্থগিত রাখার ঘোষণা করা হয়।