রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ কেনার বিষয়ে আগেও বারবার আপত্তি জানিয়েছে আমেরিকা। চুক্তি বাতিল না করলে যে ফল ভাল হবে না, সেই হুঁশিয়ারিও দিয়েছে। শুক্রবার ফের ভারতকে সতর্ক করল আমেরিকা। জানিয়ে দিল, চুক্তি বাতিল না করলে নিয়মভঙ্গের অভিযোগ আনা হবে ভারতের বিরুদ্ধে। মাসখানেক আগেই এস-৪০০কেনার জন্য তুরস্কের উপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ওয়াশিংটন। এদিনের হুঁশিয়ারি থেকে পরিষ্কার, ভারতের বিরুদ্ধেও এমন পদক্ষেপ নিতেই পারে আমেরিকা।

এজন্য কূটনৈতিক সম্পর্ক ঠিক রাখতে ট্রাম্প প্রশাসনের তরফে ৫০০ কোটি ডলারের এই চুক্তি বাতিল করতে বলা হয়েছে৷ আগামী সপ্তাহেই জো বাইডেন শপথ নেবেন প্রেসিডেন্ট পদে। ওয়াকিবহাল মহলের মত রুশ মিসাইল নিয়ে এই বিতর্ক চলবেই। বাইডেন প্রশাসন ভারতের জন্য নিয়ম শিথীল করতে নাও পারে।

যদিও ভারতের তরফে সাফ জানান হয় চিনের হুমকির বিরুদ্ধে লড়াই করতে হলে এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলির প্রয়োজন রয়েছে৷ সম্প্রতি লাদাখে যেভাবে চিনা আগ্রাসন বৃদ্ধি পেয়েছে তা নিয়ে যথেষ্ট চিন্তিত ভারত৷ তবে নয়া দিল্লি আমেরিকার সঙ্গে সু-সম্পর্ক বজায় রাখতে চেষ্টা করবে তা বলাই বাহুল্য।”ভারত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্বব্যাপী কৌশলগত সম্পর্ক রয়েছে। অন্যদিকে, রাশিয়ার সঙ্গে ভারতের একটি বিশেষ এবং সুবিধাজনক কৌশলগত সম্পর্ক রয়েছে।” বলেই জানিয়েছেন বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব।
প্রসঙ্গত, পূর্ব লাদাখের প্রকৃত সীমান্তরেখায় লালফৌজের মোকাবিলা করার জন্য এই ক্ষেপণাস্ত্র অত্যন্ত ভূমিকা পালন করবে। মার্কিন হুঁশিয়ারিতেও ভারত নিজেদের পথ থেকে সরবে না বলেই ইঙ্গিত দিয়েছে কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রক।