নিউজপোল ডেস্ক: রূপান্তরকামী সুপারহিরো নিয়ে মার্ভেল সিনেমাজগতের ভাবনাচিন্তা আজকের নয়। তবে খবর অনুসারে, এবার পরিকল্পনার অবসান হয়ে পর্দায় আসতে চলেছে মার্ভেলের প্রথম রূপান্তরকামী সুপারহিরো— টেসা থম্পসন অভিনীত চরিত্র ‘ভ্যালক্যুরি’।

শনিবার ২০ জুলাই কমিক-কনের মার্ভেল প্যানেলের আলোচনা চলাকালীন এই বিষয়ে একটু ইঙ্গিত দিয়েছিলেন টেসা। ‘অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম’-এর শেষে দেখা গেছিল, অ্যাসগার্ডের যুবরাজ থর তাঁর দুনিয়ার পরবর্তী শাসক হিসেবে নির্বাচন করেন ভ্যালক্যুরিকেই। থর সিরিজের আগামী ছবি ‘থর: লাভ অ্যান্ড থান্ডার’-এ সেই ভূমিকাতেই দেখা যাবে টেসাকে। সেই প্রসঙ্গ তুলে টেসা জানান, রাজা হিসেবে ভ্যালক্যুরির প্রথম কাজ একজন যোগ্য রানিকে খুঁজে বার করার কথা। ঘটনা আরও পরিষ্কার হয় যখন প্যানেল আলোচনার পর মার্ভেলের প্রধান কেভিন ফাজ জানিয়ে দেন যে ভ্যালক্যুরি রূপান্তরকামীই। তবে চরিত্রের সেই দিকটি পরবর্তী বিভিন্ন ছবিতে বিভিন্ন প্রসঙ্গে উপস্থাপিত হবে, শুধু মাত্র এই ছবিতে নয়। তবে মার্ভেল কমিক্স যাঁরা পড়েছেন, তাঁরা আগে থেকেই জানেন ভ্যালক্যুরির চরিত্রটি রুপান্তরকামী হওয়ার ব্যাপার। সুতরাং এই ঘোষণা যে খুব আশ্চর্যজনক, সেটা নয়।
তবে শুধু ‘থর: লাভ অ্যান্ড থান্ডার’ ছবিই নয়, মার্ভেলের অন্যান্য সিনেমাতেও আত্মপ্রকাশ হতে চলেছে রূপান্তরকামী প্রধান চরিত্রের। থর সিরিজের চতুর্থ ছবির আগেই মুক্তি পাবে মার্ভেলের আরেকটি ছবি ‘দ্য ইটার্নালস’। সেখানেও রূপান্তরকামী নায়ক থাকবেন বলেই খবরে প্রকাশ। গত মে মাসে ‘অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম’-এর লেখক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, এরপর চেনা অচেনা বহু রূপান্তরকামী নায়ক এবং চরিত্রই দেখা যাবে মার্ভেলের পরবর্তী ছবিতে। তবে কোনও চরিত্রের অতীত এর ফলে বদলাবে বলেই জানিয়েছেন তিনি।