ভিডিও গেম(Video Game)।এই বস্তুটি যেনো যুব সমাজের মধ্যে এক অজানা বোমায় ভরা ব্যাগের মতো।

যাঁরা ব্যাগটিকে এড়িয়ে যাচ্ছে বা সামান্য নাড়াচাড়া করছেন তাঁদের খুব একটা ক্ষতি না হলেও, যাঁরা ব্যগটির মধ্যে ঢুকে যাচ্ছেধ তারা নাহয় হয়ে চলে যাচ্ছে এক অন্য জগতে নাহলে মৃত্যুর দিকে।

হ্যাঁ মৃত্যুর দিকে।ভিডিও গেম এর কারণে যুব সমাজে মৃত্যুর পরিসংখ্যান দিনকে দিন বেড়েই চলেছে। কখনো কখনো ভিডিও গেমে বুঁদ হয়ে থাকতে গিয়ে হার্ট অ্যাটাক আসছে।আবার কখনো রেললাইনের উপর বসে এতটাই মনোযোগ দিয়ে ভিডিও গেম খেলছেন যে কখন ট্রেন এসে গেছে তার হুঁশ পায়নি।

সম্প্রতি ভিডিও গেমের জন্য প্রাণ গেল আরও এক তরুণের। ভিডিও গেমের তাঁর ছিল প্রবল আসক্তি। বয়স ছিল ২১ বছর।

ঘটনাটি হুগলির গোঘাটে ধুলেপুর এলাকার শুভদীপ ঘোষালের।গেমে নির্দিষ্ট অস্ত্র পোশাক ইত্যাদি কেনার জন্য পরিবারের কাছে বারবার টাকার দাবি করত সেই যুবক।

যখনই নিত্যনতুন ট্রেন্ডিং অস্ত্র পোশাক কেনার টাকা পরিবার থেকে পেত না তখনই বাড়িতে ঝামেলা করতো বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে। যুবকের বাবা কাশীনাথ ঘোষাল হলেন ছোট ব্যবসায়ী।

সুজয় ঘোষ নামে এক আত্মীয় জানান,”ও গেম খেলত। বাড়িতে পয়সাও চাইতো। পয়সা না পেলেই সমস্যা হতো। বাড়িতে অশান্তি হতো। অনেক দিন ধরেই এই সব চলছিলো। মূলত গেম খেলার কারণেই এই সমস্যা তৈরি হয়েছিল। তবে এর মধ্যে অন্য ব্যাপার থাকতে পারে। অতটা জানিনা।”

রবিবার সকালে শুভদীপ এর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করেন বাড়ির লোকজন।শনিবার রাত বারোটা নাগাদ ঘুমিয়ে পড়ার পর আত্মঘাতী হন সেই যুবক।পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।দেহ পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তে।