বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের (Visva-Bharati University) রেজিস্ট্রার আশিস আগরওয়ালের অফিসে ঢুকে সোমবার প্রায় ২০০ জন ছাত্র ‘হাল্লা বোল’ স্লোগান দেওয়ার পরে তার পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। ছাত্রাবাস পুনরায় খোলার দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ বিঘ্নিত হয়েছে কারণ তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্ত করেছিল।

“আশিস আগরওয়াল আমাকে মিডিয়াকে জানাতে অনুরোধ করেছেন যে তিনি আর বিশ্বভারতীর নিবন্ধক নন। তিনি পদত্যাগ করেছেন এবং তাই তিনি মিডিয়ার মুখোমুখি হবেন না,” মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখপাত্র অতীগ ঘোষ গণমাধ্যমকে বলেছেন।

বিশ্বভারতীর রেজিস্ট্রার আশিস আগরওয়ালের উপর বেশ কয়েকদিন ধরেই নানা চাপ চলছিল। মার্চের গোড়ায় নিজেদের দাবি আদায়ে রেজিস্ট্রারকে ঘেরাও করেন ছাত্রছাত্রীরা। ঘেরাও হন অন্যান্য আধিকারিকরাও। রেজিস্ট্রার ঘর থেকে বেরতে চাইলেও তাঁকে বাধা দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ওঠে। এই অবস্থায় তিনি প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কাও করেছিলেন সাংবাদিকদের কাছে। বলেছিলেন, ‘আমাকে অন্যায়ভাবে ওরা বন্দি করে রেখেছে। এটা সম্পূর্ণ ভুল পদ্ধতি। এতজন ঘরের বাইরে বসে রয়েছে, বেরতেই পারছি না। প্রাণ সংশয় হচ্ছে।’

এরপর আন্দোলন খানিকটা শিথিল করে ঘেরাওমুক্ত হওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে পড়াশোনার পরিবেশ ফেরাতে রেজিস্ট্রার বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের সঙ্গে আলোচনার ইচ্ছাপ্রকাশ করেন। তাঁর অভিযোগ, উপাচার্য তাঁর এই পরিকল্পনাকে সমর্থন করেননি। তাঁকে বারবার প্রশাসনিক কাজে বাধা দিচ্ছেন। আর সেই কারণেই আন্দোলনের আঁচ নিভিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ স্বাভাবিক করা যাচ্ছে না বলে মত তাঁর। আর এসবের চাপে পড়েই রেজিস্ট্রারের পদত্যাগের সিদ্ধান্ত বলে মনে করা হচ্ছে।

আরো পড়ুন:  BAFTA : ‘মেমোরিয়াম মন্তাজ’ -এ সম্মানিত লতা ও দিলীপ কুমার