বিধানসভা নির্বাচনের(Vote) পূর্বে বাংলায় প্রত্যেকটি দল বজায় রেখেছিল টান টান উত্তেজনা।

সিপিআইএম নির্বাচনের(Vote) পূর্বে কংগ্রেস ও আইএসএফ (ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট) এর সঙ্গে জোট গড়ে।

তাতে ভোটের(Vote) আগে দলের অন্যান্য নেতাদের পাশাপাশি আব্বাস সিদ্দিকীকে দেখা যায় ভীষণ সক্রিয় ভূমিকায়।

কিন্তু বর্তমানে কি অবস্থা সুংযুক্ত মোর্চার?

তার আভাস পাওয়া গেলো সীতারাম ইয়েচুরির কথায়।ভোট(Vote) শেষ হয়ে যাওয়ায় জোট শেষ হয়ে গিয়েছে বলেই দাবি করলেন সীতারাম ইয়েচুরি।

আরও পড়ুন : বই যত্নে রাখবেন কীভাবে? জেনে নিন এখানে।

Vote: The election is over, so the alliance is over! Claim CPIM

কোলকাতায় সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর একটি বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে এসেছিলেন তিনি।

সেখানেই সংবাদমাধ্যমকে স্পষ্ট জানান,’জনতা পার্টি এসেছিল ইন্দিরা গান্ধীকে হারাতে।হারিয়ে দেওয়ার পরেই জনতা পার্টি শেষ।ইমিডিয়েট পারপাসের জন্য ফ্রন্ট তৈরি হয়।ইভেন্ট শেষ হলে পারপাস থাকেনা।’

ভবানীপুর উপনির্বাচনে প্রার্থী দেওয়া নিয়ে কংগ্রেস এবং সিপিআইএম এর মধ্যে হওয়া বচসার ইঙ্গিত যে ভালো ছিলো না তা অনেকটা স্পষ্ট করে দেয় জোট ভঙ্গের ধারণা।

এছাড়াও বিধানসভা নির্বাচনে(Vote) জোটের ভবিষ্যত্ যে খুব একটা ভালো না তার ইঙ্গিতও পাওয়া যাচ্ছিল।

তবে অনেকেরই আশা ছিল আগামীদিনে পুরনির্বাচনের সংযুক্ত মোর্চা হিসেবে লড়াই করতে পারে সিপিএম।

গত বিধানসভা নির্বাচনেও আইএসএফ এবং কংগ্রেসকে নিয়ে জোট গড়ায় আসন নিয়ে বিতর্ক হয়েছিল।

কিন্তু ভোট(Vote) শেষে দেখা যায় মোর্চার ঝুলিতে একটিমাত্র আসন ছিলো,দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়।জিতেছিলেন আইএসডএফ এর নৌসাদ সিদ্দিকি।

আরও পড়ুন :স্কুল পড়ুয়ার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢুকল ৯০০কোটি টাকা

আরও পড়ুন : শুরু হল দেশের ৪৫ – তম জিএসটি বৈঠক