নববধূ কোনো না কোনো অজুহাত দেখিয়ে মধুচন্দ্রিমা (Honeymoon) উদযাপন করতে অস্বীকৃতি জানালে, বর কিছু সময়ের জন্য তার কথা মানতে থাকে। একদিন স্বামী জোর করে স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক করতে চাইলে স্ত্রী দাঁত দিয়ে তার গোপনাঙ্গ কেটে ফেলেন। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের কৌশাম্বি জেলার।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, এই ঘটনার শিকার ওই ব্যক্তি বিছানায় বসে কাঁদতে শুরু করেন এবং অন্য ঘরে চলে যান। এর সুযোগ নিয়ে নবদম্পতি নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে পালিয়ে যায়।

নির্যাতিতা জানান, গত ২৭ জানুয়ারি মির্জাপুরের বিন্ধ্যাচলে তাদের বিয়ে হয়। প্রয়াগরাজের একটি গেস্ট হাউসে বিয়ের অনুষ্ঠান হয়। বিয়ের পর শ্বশুর বাড়িতে পৌঁছে যাওয়া মেয়েটি তার স্বামীকে হানিমুনের (Honeymoon) দিনেও শারীরিক সম্পর্ক করতে দেয়নি।

স্বামী বলেছেন যে তার স্ত্রী ক্রমাগত কোন না কোন অজুহাত দেখাতেন এবং হানিমুন উদযাপন করতে অস্বীকার করেন। ২২ ফেব্রুয়ারি রাতে নববধূর সঙ্গে মধুচন্দ্রিমা উদযাপন করতে গিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করতে চাইলে স্ত্রী দাঁত দিয়ে তার গোপনাঙ্গ কেটে দেন।