একই সঙ্গে করোনা ভাইরাসের দুই প্রজাতিতে আক্রান্ত। একটি আলফা প্রজাতি। অপরটি বেটা। ৯০ বছরের সেই আক্রান্ত মহিলার মৃত্যু হয়েছে। তিনি বেলজিয়ামের বাসিন্দা ছিলেন। এখন পর্যন্ত কোনও মেডিকেল জার্নালে এই ঘটনা প্রকাশ করা হয়নি। বেলজিয়ান গবেষকদের মতে, এই নিয়ে আরও পরীক্ষা জরুরি।
বেলজিয়ামের আলস্ট শহরে থাকতেন ওই প্রবীণা। একা বাড়িতে। নার্স দেখভাল করত তাঁকে। মার্চ মাসে অসুস্থ হন। শহরের ওএলভি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। সেদিনই করোনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। প্রবীণার শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা ভালোই ছিল। কিন্তু ক্রমেই অবস্থার অবনতি হতে থাকে। পাঁচ দিন পর মারা যান তিনি।
এর পরই হতবাক হওয়ার পালা চিকিৎসকদের। পরীক্ষা করে দেখা যায়, আলফা এবং বিটা, করোনার দুই প্রজাতিতে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। আলফা ব্রিটেনে উদ্ভুত। আর বিটা প্রজাতিতে প্রথম মেলে দক্ষিণ আফ্রিকায়। তিনি কীভাবে আক্রান্ত হলেন, জানতে পারেননি চিকিৎসকরা। তবে তাঁদের মতে, দু’‌জন আলাদা মানুষের থেকে দুই প্রজাতিতে সংক্রামিত হয়েছেন প্রবীণা। ওই সময় বেলজিয়ামে ওই দুই প্রজাতির সংক্রমণ বেড়েছিল। দুই প্রজাতিতে একসঙ্গে আক্রান্ত হওয়ার ফলেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে কিনা, চিকিৎসকরা এটা বলতে পারেননি।